1. abusayedatnkh@gmail.com : Abu Sayed : Abu Sayed
  2. admin@www.deshsangbadtv.com : YH_MCC :
বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৪৯ অপরাহ্ন

বিরামপুরে ১৯ জুয়াড়ী আটক

নয়ন হাসান বিরামপুর,দিনাজপুর প্রতিনিধি।
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ৩০ বার পড়া হয়েছে

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:

বিরামপুর থানা পুলিশের বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের কল্যানপুর এলাকা হইতে ৩ বান্ডিল তাস, জুয়া খেলার নগদ ২০ হাজার ৭শ ৩৫ টাকা, ১টি সাদা প্লাষ্টিকের বস্তার পাটি উদ্ধারসহ ১৯ জুয়ারুকে আটক করেছে বিরামপুর থানা পুলিশ। বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃত জুয়াড়ীরা হলেন- বিরামপুর উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের কল্যানপুর গ্রামের মৃত আঃ গফুর পুত্র মোঃ আব্দুল বাতেন (৪৮), একই গ্রামের মোঃ মোসলেম উদ্দিনের পুত্র মোঃ গোলজার হোসেন (৪৫), মোঃ মনির উদ্দিনের পুত্র মোঃ শাহজাহান মিয়া (৪৫), আব্দুল হাতেম আলীর পুত্র মোঃ ফরহাদ হোসেন (৩০), মৃত তছলিম উদ্দিনের পুত্র মোঃ ফারুক হোসেন (৪০), মৃত মজিবর রহমানের পুত্র মোঃ দুলাল হোসেন (৩৫), মৃত জহির উদ্দিনের পুত্র মোঃ আনিছুর রহমান (৪০), মৃত ওসমান মন্ডলের পুত্র মোঃ দবিরুল ইসলাম (৩৮), মৃত জসিম উদ্দিন পুত্র মোঃ মিজানুল রহমান (৫০), মৃত ইউনুস আলী মন্ডলের পুত্র মোঃ শাহাদত হোসেন (৬০),মৃত কলিম উদ্দিন সরকারের পুত্র মোঃ আব্দুর রশিদ সরকার (৩৭), লক্ষীরাম হাসদার পুত্র বুদ্ধিনাথ হাসদা (৩৯), মৃত ফইমুদ্দিনের পুত্র মোঃ বেলাল হোসেন(৪৩), মৃত হবিবর রহমানের পুত্র মোঃ বাচ্চু (২৮),বাজেন মার্ডির পুত্র ভারত মার্ডি (৩৬), মৃত তসলিম উদ্দিনের পুত্র মোঃ রানা (৩৬), মোঃ আব্দুল জব্বারের পুত্র মোঃ নয়ন হোসেন (২৮), মৃত জাফ আলীর পুত্র মোঃ বদিউজ্জামান (৫২) ও মোঃ মামুনুর রশিদের পুত্র মোঃ মেহেদী হাসান সোহাগ(২৬) এই সূত্রে থানা পুলিশ জানায়। (৫ নভেম্বর) শুক্রবার ভোর ৩ টার সময় বিরামপুর উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের কল্যানপুর গ্রামে এ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে বিরামপুর থানা পুলিশ। বিরামপুর থানা সূত্রে জানা যায় যে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত’র দিক-নিদের্শনায় এসআই শাজাহান সিরাজ ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ গতকাল শুক্রবার ভোর ৩ টার সময় উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের কল্যানপুর গ্রামে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ৩ বান্ডিল তাস, জুয়া খেলার নগদ ২০ হাজার ৭শ ৩৫ টাকা, ১ টি সাদা প্লাষ্টিকের বস্তার পাটি উদ্ধারসহ ১৯ জুয়ারুকে হাতে নাতে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময় পু্লিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে ৩/৪ জন অজ্ঞাতনামা আসামী পালিয়ে যায়।
বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় বিরামপুর থানায় ১৮৬৭ সালের জুয়া আইনের ৩/৪ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং বাকী পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও ব্যবহার বেআইনি

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট